তালা-কলারোয়ায় গত ৪ বছরে দৃশ্যমান কোন কাজ হয়নি  শেখ নুরুল ইসলাম

0
148

খলিলুর রহমান, পাটকেলঘাটা প্রতিনিধি:বর্তমান সরকার সাংবাদিকদের সব থেকে বেশী সুযোগ সুবিধা দিয়েছে। বর্তমানে সাতক্ষীরা-১ (তালা-কলারোয়া) এই আসনে গত ৪ বছরে দৃশ্যমান কোন কাজ হয়নি, ১৭ বছর সময় লাগবে তালা-কলারোয়ার গ্রামের রাস্তা চিনতে, ২২৫টি ওয়ার্ড ৪১৭টি গ্রামের প্রায় সাড়ে ৪লক্ষ ভোটারের মাঝে আস্থা অর্জন করে আমি নির্বাচনে নৌকা প্রতিক নিয়ে নির্বাচন করতে চাই, তালা-কলারোয়ার মাটি আ’লীগের ঘাটি, তাছাড়া বার বার নিজেদের আসন যদি শরীক দলকে দেওয়া হয় তাহলে নিজেদের অস্থিত্ব থাকে না। বাড়ী থেকে বাড়ী, ওয়াডর্, ইউনিয়ন, থানা ও উপজেলা পর্যায়ে দলীয় সংগঠন মজবুতে নিরলশ ভাবে কাজ করে যাচ্ছি, দলীয় মনোনয়ন পেয়ে নির্বাচিত হলে মানুষের জন্য কাজ করে যাবো, পাটকেলঘাটাকে উপজেলায় রুপাস্তর করা হবে, এছাড়া তালা ও পাটকেলঘাটাকে পৌরসভা করবো, এছাড়া এলাকার রাস্তাঘাটের উন্নয়নে কাজ করে যাবো, আমি তালা উপজেলা আ’লীগে সাধারন সম্পাদক ছিলাম ১১ বছর বর্তমানে ১৫ বছর ধরে উপজেলা আ’লীগের সভাপতি, গত দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আমি দলীয় ভাবে নৌকা প্রতিক পেলেও জোটগত ভাবে এ আসনটি ছেড়ে দিতে হয়, এবার সবুজ সংকেত পেয়েছি, উপরোক্ত কথাগুলো বলেন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের নৌকা প্রতিকের প্রার্থী বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ তালা উপজেলার সভাপতি শেখ নুরুল ইসলাম। সোমবার রাত ৮টায় রিপোর্টার্স ক্লাব পাটকেলঘাটায় সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় কালে এসব কথাগুলো বলেন। এসময় শেখ নুরুল ইসলামের সাথে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ টেলিভিশনের সাতক্ষীরা জেলা প্রতিনিধি, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারন সম্পাদক ও খলিষখালী ইউপি চেয়ারম্যান সাংবাদিক মোজাফ্ফর রহমান, উপজেলা আ’লীগের সদস্য আশরাফ উদ্দীন, যুবলীগ নেতা আলাউল, রেজাউল, সুজাত, সামিউল, শ্রমিকলীগনেতা মহসিন, সরুলিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক মিনহাজ মুনমুন, কুমিরা ইউপি ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক সোহেল রানাসহ আ’লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।