জাতীয় সাংবাদিক সংস্থার ৩৭ বর্ষপূর্তি উপলক্ষে কেন্দ্রীয় সভাপতির বাণী

0
171

জাতীয় সাংবাদিক সংস্থার ৩৭ বর্ষপূর্তি উপলক্ষে সারা দেশে আজ উদযাপিত হচ্ছে আনন্দ উৎসব। দেশের সকল ও উপজেলা শাখা উদ্যোগ নিয়েছে বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের। তা জেনে আমি খুবই আনন্দিত হয়েছি। মূলত: আমাদের গণমাধ্যম জগতে সাম্প্রতিক সময়ে বিশাল বিপ্লব সাধিত হয়েছে।এই বিপ্লবকে সঠিকভাবে ব্যবহার ও সঠিক পথে চালিত করতে পারলে দেশ-জাতি-জনতার প্রভূত কল্যাণ সাধিত হবে নি:সন্দেহে।এ ক্ষেত্রে সাংবাদিক সংগঠনের ভূমিকা অনন্য।জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সে বিষয়ে সচেতন। কারণ গণমাধ্যমের স্বাধীনতা তথা বাকস্বাধীনতা নিশ্চিত করা না গেলে ক্ষতিগ্রস্ত হবে সকলেই। বাকস্বাধীনতার অধিকার হচ্ছে উন্নয়নের অংশ।বাকস্বাধীনতার অধিকার মানে হচ্ছে সত্য আবিষ্কার ও মানব মর্যাদা সমুন্নত করা। কিন্তু সমাজ ও রাষ্ট্র অনেক সময় বাকস্বাধীনতার ওপর বিধি-নিষেধ আরোপ করে থাকে।এ ধরনের নিষেধাজ্ঞা স্বাভাবিকভাবেই সত্যের প্রকাশ বাধাগ্রস্ত করে।আবার গণমাধ্যম বা কোন ব্যক্তি যা বলতে, লিখতে, প্রচার বা প্রকাশ করতে চায়; তাতে বিধি-নিষেধ আরোপ হচ্ছে তার মর্যাদা ও ব্যক্তিগত বিকাশের পথে বাধা সৃষ্টির নামান্তর।
বাকস্বাধীনতা বা মত প্রকশের স্বাধীনতা হচ্ছে বর্তমান দুনিয়ার একটি বহুল আলোচিত স্বীকৃত অধিকার। স্বাধীন মানুষ হিসেবে প্রত্যেকের অধিকার রয়েছে, যে কোন বিষয়ে নিজস্ব মতামত ও দৃষ্টিভঙ্গি অপরকে জানানো।গণমাধ্যমের ক্ষেত্রেও একই কথা। এই সাধারণ অধিকারটির প্রতি সকলেরই উদার মনোভাব ও দৃষ্টিভঙ্গি থাকাই কাম্য।এ লক্ষ্য সামনে নিয়েই সংস্থা গত ৩৭ বছর কাজ করে আসছে নিরবচ্ছিন্নভাবে। আজ পা রাখছে ৩৮ বসন্তের পথ চলায়। সফল হোক এই ৩৮ বর্ষযাত্রা। ধন্যবাদ সকলকে।
মুহম্মদ আলতাফ হোসেন
সভাপতি,
জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা,
কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ, ঢাকা।