সর্বশেষ সংবাদ

মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশের ক্রাউন উন্মোচন

বিনোদন ডেস্কঃ গুলশানের আমিশে ফাইন জুয়েলারি ফ্ল্যাগশিপ স্টোরে অনুষ্ঠিত হয়েছে মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশের ক্রাউন (টিয়ারা) এর উন্মোচন। ক্রাউন উন্মোচন করেন মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশের বিচারক তাহসান খান, কানিজ আলমাস, আমিশের বিজনেসের প্রধান রোকেয়া সুলতানা, রিজওয়ান বিন ফারুক, চেয়ারম্যান, মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ ও মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশের শীর্ষ ১০ প্রতিযোগী।

তাহসান খান, বিচারক, মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ বলেন, “মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশের প্রথম সংস্করণের অংশ হতে পেরে আমি খুব উচ্ছ্বসিত। আমি বিগত ১২ বছর ধরে বিভিন্ন সুন্দরী প্রতিযোগিতার সাথে জড়িত ছিলাম এবং আমি অত্যন্ত আনন্দের সাথে বলতে পারি যে এটি আজ অবধি আমার দেখা সেরা ১০ প্রতিযোগী। তাদের শুভ কামনা করছি”।

আমিশের জন্য এটি একটি আনন্দের মুহূর্ত। মিস ইউনিভার্স প্রতিযোগিতা হলো আমাদের ব্র্যান্ডের জন্য একটি পূর্ণাঙ্গ ইভেন্ট। এটি এমন একটি ব্র্যান্ড যা নারীদের ব্যক্তিত্ব, শক্তি এবং ক্যারিশমা উপস্থাপন করে। আমরা এই কাস্টম ক্রাউনটি সুন্দর এবং আত্মবিশ্বাসী একজন বিজয়ীর মাথায় দেখার প্রত্যাশায় রয়েছি, যিনি বৈশ্বিক অঙ্গনে দক্ষিণ কোরিয়ায় মিস ইউনিভার্স প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করবেন।

এই ক্রাউনটি সবার জন্য গুলশান অ্যাভিনিউতে আমাদের গ্র্যান্ড স্টোরে প্রদর্শিত হবে। সকল প্রতিযোগীকে আমার পক্ষ থেকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও শুভকামনা! ‘ বলেন সোহানা রউফ চৌধুরী, ব্যবস্থাপনা পরিচালক, আমিশে।

আমরা জুয়েলারি পার্টনার হিসাবে আমিশেকে পেয়ে খুবই সন্তুষ্ট- যারা সবচেয়ে সুন্দর ক্রাউন (টিয়ারা) তৈরি করেছেন। ১৯৯৪ সালের মিস ইউনিভার্স-এর বিজয়ী সুস্মিতা সেন, প্রথমবারের মতন বাংলাদেশে আয়োজিত এ আসরের বিজয়ীর মাথায় এই ক্রাউন পড়িয়ে দিবেন, বলেন রিজওয়ান বিন ফারুক, চেয়ারম্যান, মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ।

কানিজ আলমাস, বিচারক, মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ বলেন, প্রথম মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশের মেকআপ পার্টনার হয়ে পারসোনা খুব সন্তুষ্ট। আমি অপেক্ষায় আছি কে এই আসরের বিজয়ী হয় তা দেখার জন্য।

আগামী ২৩ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে প্রথম মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশের সুন্দরী প্রতিযোগিতার গ্র্যান্ড ফিনালে। বিজয়ীকে ক্রাউন পড়িয়ে দেবেন ১৯৯৪ সালের মিস ইউনিভার্স বিজয়ী ও বলিউড অভিনেত্রী সুস্মিতা সেন।

চোখ রাখুন মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশের ফেসবুক পেজে এবং জেনে নিন কোন সুন্দরী এবং প্রতিভাবান বিজয়ী হচ্ছেন আমিশে-র তৈরি এই শৈল্পিক ক্রাউনটির অধিকারী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *